মুসা বিন শমসের কত টাকার মালিক 2023

মুসা বিন শমসের ১৯৪৫ সালে জন্মগ্রহণকারী ফরিদপুরের এই ছেলে বর্তমানে বাংলাদেশের ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় রয়েছে সবার শীর্ষে। তার বিলাসী জীবন যাপন ছাড়িয়ে গেছে পৃথিবীর যে কাউকে। বর্তমান পৃথিবীর ক্ষমতাশালী দেশ আমেরিকা দক্ষিণ কোরিয়া এমনকি রাশিয়ার অনেক সিদ্ধান্তে থাকে মুসা বিন শমসের এর উপস্থিতি। আমাদের আজকের পোস্টে উপস্থাপন করা হয়েছে এই ধনকুবের বিস্তারিত তথ্য।-Moosa Bin Shamsher Net Worth

মুসা বিন শমসের কত টাকার মালিক

১৯৪৫ সালের ১৫ই অক্টোবর ফরিদপুরে জন্মগ্রহণ করেন মুসাবিন শমসের। তার বাবার নাম শমসের আলী মোল্লা। মুসার সুইস ব্যাংকের রয়েছে বাংলাদেশী টাকায় বিশাল অংকের একটি অ্যামাউন্ট। এছাড়া ভল্ট এ রয়েছে আলাদা টাকা। তার রয়েছে ৭০০ কোটি টাকা সমমূল্যের অলংকার। গুলশানে রয়েছে দ্য প্যালেস নামক রাজকীয় বাড়ি। আর রাজধানী বনানীতে রয়েছে তার নিজের বাড়ি। ফরিদপুরে রয়েছে তার রাজকীয় বাড়ি।

এছাড়া সাভার গাজীপুর এ রয়েছে তার ১২শ বিঘা জমি। মুসা তার এই সম্পদের ব্যাপারে বলেন তার ৪০টি দেশের সামরিক বাহিনীর সাথে রয়েছে অস্ত্রের ব্যবসা। এবং যে দেশের কাছে অস্ত্র বিক্রি করেছে সেই টাকা সব সুইস ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেন করেছে এবং সুইস ব্যাংকে জমিয়ে রেখেছে।

তার রয়েছে ডেটকো নামে একটি জনশক্তি রপ্তানি কোম্পানি। যে কোম্পানির মাধ্যমে তিনি আয় করেছেন শত শত কোটি টাকা। মুসা বিন শমসের যুবক বয়সে তার ব্যবসা শুরু করেন। এবং ডেডকো কোম্পানির মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যসহ ইউরোপে জনশক্তি রপ্তানি করা শুরু করে। তার হাত ধরে বাংলাদেশ জনশক্তি রপ্তানি করা শুরু করে ইউরোপে।

তিনি না থাকলে হয়তো আজো আমরা ইউরোপের কোন দেশে কাজের জন্য বা লেখাপড়ার জন্য যেতে পারতাম না। বাংলাদেশের জনশক্তি রপ্তানির জনক বলা হয় মুসা বিন শমসের কে। গত কয়েক বছর যখন আমেরিকা কোরিয়ার মধ্যে যুদ্ধ সম্পর্ক বিরাজ করছিল পুরো পৃথিবীর মানুষ আশঙ্কায় ছিল কখন না জানি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়ে যায় তখন সারা পৃথিবীর পক্ষে একজন মাথা তুলে দাঁড়ান এই যুদ্ধ ঠেকাতে। সে আর কেউ নন এই ফরিদপুরের ছেলে মুসা বিন শমসের।

পেশা ব্যবসায়ী
মোট সম্পদ১২ বিলিয়ন ডলার বা
১,২৩০০০ কোটি টাকা
মাসিক বেতন _
বাৎসরিক আয় ৫০০ মিলিয়ন ডলার বা
৫ হাজার কোটি টাকা
বয়স ৭৭ বছর
জন্মস্থান ফরিদপুর

তিনি যেহেতু অস্ত্র ব্যবসা করেছেন আমেরিকা এবং কোরিয়া দুই দেশের সাথেই তাই ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জং উন এর সাথে রয়েছে তার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। তিনি দুজনকে বুঝিয়ে তাদের মধ্যে একটা মিটিং করানোর সিদ্ধান্ত নেন। আর তার একান্ত চেষ্টার ফলে ২০১৮ সালে ট্রাম্প এবং কিম জং উন এর মিটিং সম্পন্ন হয়। যে মিটিংয়ে তারা গোটা পৃথিবীর জন্য একটি শান্তির বার্তা নিয়ে আসে। এছাড়া মুসা বিন শমসের এর বিলাসী জীবনযাপন দেখে দুবাই থেকে তাকে দেয়া হয়েছে প্রিন্স উপাধি।

মুসা বিন শমসের মোবাইল নাম্বার

মুসা বিন শমসের এর মোবাইল নাম্বার পাওয়া অনেক কঠিক একটি কাজ। তাই তার মোবাইল নাম্বার যে কেউ ইচ্ছে করলেই পেতে পারেন না। তবে কিছু পন্থা অবলম্বন করে তার সাথে আপনি যোগাযোগ করতে পারেন।

যেহেতু মুসা বিন শমসের ডেটকো কোম্পানীর প্রতিষ্ঠাতা। তাই সেখানে যোগাযোগ করলেই আপনি সহজেই তার পর্যন্ত পৌছাতে পারেন। মুসা বিন শমসের এর মোবাইল নাম্বার পেতে হলে ডেটকো কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করুন।

ফোনঃ ০০৮৮-০২-৯৮৮৩৩৯২-৬ 
মেইলঃ info@datco-bd.com

মুসা বিন শমসের বিশ্বের কততম ধনী

তিনি যেই ঘড়ি ব্যবহার করেন রোলেক্স কোম্পানির তৈরি সেই ঘড়িটির মূল্য প্রায় 50 লক্ষ ডলার। তিনি যে আন্টি ব্যবহার করেন তার মূল্য প্রায় লক্ষ ডলার। তার ব্যবহারের স্যুট গুলো স্বর্ণ খচিত। আবার অনেকগুলোতে রয়েছে হিরে দিয়ে ডিজাইন করা। তার প্রত্যেকটি স্যুতের মূল্য প্রায় ১০ হাজার পাউন্ড এরও বেশি। তিনি পড়েন হীরের খচিত জুতো। যার মূল্য লক্ষ্য ডলার। এরকম হিরের খচিত কয়েক হাজার জুতো রয়েছে তার সংগ্রহশালায়।

তার গুলশানের যে বাড়ি রয়েছে তা ফাইভ স্টার মানের। কয়েক ডজন শেষ রয়েছে তার বাড়িতে শুধু খাবার পরিবেশন এর জন্য। মুসা বিন শমসের তার বউ এর হাতের মাখানো খাবার খেতেই বেশি পছন্দ করেন। তাই কখনো দেশের বাইরে গেলে বেশিরভাগ সময়ই তার স্ত্রীকে সাথে করে নিয়ে যান তিনি। শুধু তার হাতের মাখানো খাবার খাওয়ার জন্য।

তার জন্মদিনে এটিএন বাংলা চ্যানেল কে কয়েক ঘন্টার জন্য ভাড়া নিয়েছিলেন শুধুমাত্র তার জন্মদিনের রাজকীয় অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করার জন্য। আর দেখানোর জন্য সারা বাংলাদেশের মানুষকে। যেখানে তিনি বলেছিলেন আমি যে রকম বিলাসী জীবন যাপন করি তা বলিউড হলিউড মুভি তে দেখানো জীবনযাপন এর থেকে কোন অংশে কম নয়। তবে সম্প্রতি তিনি ট্যাক্স নিয়ে দুদকের সাথে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন। তিনি বলেন তার সম্পদের বড় অংশ সুইস ব্যাংক জব্দ করে ফেলেছেন তাই তিনি ট্যাক্স দিবেন না বলে অস্বীকার করেছেন।

মুসা বিন শমসের কলমের দাম কত

  • কলমের দাম ১০ কোটি টাকা 
  • জুতার দাম ১০ কোটি টাকা 
  • ঘড়ির দাম ৮ কোটি টাকা 

মুসা ব্যবহার করেন এমন একটি কলম যা কিনা ফ্রান্সের নির্মাতা কোম্পানি একটাই তৈরি করেছে। ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ দিয়ে তৈরি এই কলমে রয়েছে প্রায় ৭৫০০ টি হীরের খন্ড। সুইস ব্যাংকে রাখা হয় এই কলম। যখন দরকার হয় তখন নিরাপত্তার মাধ্যমে এই কলমটি নিয়ে যাওয়া হয়। আবার কাজ শেষে রেখে দেওয়া হয় সুইস ব্যাংকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *