Your Website

আমির খান কত টাকার মালিক

Aamir Khan

আমির খান এর মোট সম্পদ

২,৪৫০ কোটি টাকা

 

 

 

 

আমির খান কত টাকার মালিক ?

আমির খান বলিউডের সবচেয়ে সফল অভিনেতা, যার রয়েছে দুনিয়ার জোড়া খ্যাতি। আপনি হয়তো তাকে চেনেন থ্রি ইডিয়টস পিকে কিংবা দাঙ্গাল ছবির মাধ্যমে। আপনার কাছে হয়তো তিনি এর অদম্য সাহসী মানুষ, এক বীরপুরুষ। আমির খান এর পূর্ণ নাম মোঃ আমির হোসাইন খান। ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে একজন। যিনি তার অসাধারণ অভিনয়ের জন্য গোটা বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের কাছে প্রিয় একটি মুখ।

তার জন্ম হয় ১৯৬৫ সালের ১৪ই মার্চ। মুম্বাই শহরের বান্দ্রা এলাকার হোলি ফ্যামিলি হাসপাতালে। তিনি যে পরিবারের জন্মেছিলেন সেটি ছিল এক রক্ষণশীল মুসলিম পরিবার। যাদের পূর্বপুরুষেরা আফগানিস্তান ছেড়ে ভারতে চলে এসেছিল। তার উচ্চতা পাসপোর্ট ৫ ,৬ কিংবা ৭ ইঞ্চি।

পেশা অভিনেতা এবং প্রযোজক
মোট সম্পদ২,৪৫০ কোটি টাকা
মাসিক বেতন ১৩ কোটি টাকা
বাৎসরিক আয় ১৫৫ কোটি টাকা
বয়স ৫৭ বছর
জন্মস্থান মুম্বাই, ইন্ডিয়া

তার রয়েছে দুই বোন ও এক ভাই। তার বাবা হলেন চলচ্চিত্র প্রযোজক তাহির হোসাইন আর মা জিনাত হোসাইন হলেন গৃহিনী। এত নামাজ চলচ্চিত্র পরিচালক নাসির হোসাইন হলেন তার চাচা। তাছাড়া তিনি হলেন ভারতের তৃতীয় রাষ্ট্রপতি ডক্টর জাকির হোসেনের বংশধর। ৫৪ বছর বয়সী এই অভিনেতা পরিবার নিয়ে বসবাস করেন মুম্বাইয়ের বান্দ্রা অঞ্চলের বিলাসবহুলের অট্টালিকা।

ভারতীয় সিনেমা জগতের 100 বছরের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যবসা সকল ছবির তালিকা আমির খানের দাঙ্গাল ছবিটি রয়েছে সবার প্রথমে। এ তালিকার সেরা বৃষ্টি ছবির মধ্যে পাঁচটি হলো আমির খানের। বলা হয় বলিউডের রেকর্ড করার জাদুকর কেবল একজনই আমির খান। তার এক একটা ছবি মানে বক্স অফিসের রেকর্ড ভাঙ্গা গড়ার খেলা।

তার সম্পদের পরিমাণ দেড় থেকে দুই বিলিয়ন রুপি। রয়েছে একাধিক বিদেশী গাড়ি। বিশাল দিহি 6 জন বডিগার্ড রয়েছে তার সার্বক্ষণিক পাহারায়। যেখানেই তিনি যান সঙ্গে যান তারা। আট বছর বয়সেই আমির খানকে দেখা যায় তার চাচা নাসির হোসাইন এর ইয়াদো কি বারাত ছবির একটি গানের দৃশ্য এ। এটি ছিল সিনেমার পর্দায় তার প্রথম অভিষেক। পরের বছরও তিনি বাবা তাহের হোসাইন এর মার দোষ ছবির সামনে দৃশ্য অভিনয় করেন।

কিন্তু এরপর ১০ বছর পর্যন্ত তাকে আর সিনেমার পর্দায় দেখা যায়নি। এই সময়টা তিনি মন দিয়েছিলেন পড়াশোনায়। আমির খান মূলত পড়াশোনা করেছিলেন উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত। তার শিক্ষাজীবন অতিক্রান্ত হয়েছিল চারটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। প্রথমটিতে পড়েছিলেন নার্সারিতে, দ্বিতীয়টিতে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত, তৃতীয় তৃপ্তি মাধ্যমিক পাস করেন এবং সর্বশেষে নার্সি মঞ্জি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেই শিক্ষা জীবনের ইতি টানেন তিনি।

১৯৮৬ সালের ১৮ই এপ্রিল ঋণাতত্ত্ব কে বিয়ে করেছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় তারকা আমির খান। চলচ্চিত্রের সাথে যুক্ত ছিলেন রিনা দত্ত। ২০০২ সালের ডিসেম্বরে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর ২০০৫ সালের ২৮ ডিসেম্বর চিত্রপরিচালক কিরণ রাউকে বিয়ে করেন আমির খান।

আপনি হয়তো জেনে থাকবেন যে প্রতিটি ছবির জন্য আমির খান পারিশ্রমিক নেন পঞ্চাশ থেকে ৬০ কোটি রুপি। কিন্তু প্রকৃত সত্যটা কি জানেন, কোন মুভির জন্যই তিনি একটি পয়সাও নেন না। একেবারে বিনা পয়সায় তিনি প্রতিটি মুভিতে অভিনয় করেন। কিন্তু ছবিটি মুক্তির পর যখন সব খরচ ঢুকিয়ে মূলধন ফিরে আসে প্রযোজকের হাতে। তখনই তিনি ছবির লাভ ভাঙচুর একটি বড় পার্সেন্টেজ নিয়ে থাকেন। আর যদি কোন ছবি তার মূলধন ওঠাতে ব্যর্থ হয় তাহলে কোন পয়সাই নেন না আমির খান। প্রতি সিনেমায় তিনি অভিনয় প্রযোজনা ও অন্যান্য চুক্তি থেকে অন্তত ১০০ কোটি টাকা আয় করেন। তার বাৎসরিক আয় ৩৫০ কোটি টাকা। সিনেমা বিজ্ঞাপন ব্যবসা প্রযোজনা সংস্থা আর নানা চুক্তি এন্ড এন্ডোসমেন্ট থেকে এই অর্থ আয় করেন তিনি।

নতুন অ্যাপার্টমেন্ট কিনেছেন আমির খান। সেটি ভারতের মুম্বাই এর বান্দ্রায় পালি হিল এলাকায়। বহুতলা ভবনের ১৮ তলার অ্যাপার্টমেন্ট কিনেছেন তিনি। যার দাম ৫০ কোটি টাকার মত। এই বলিউড তারকার আরো একটি অ্যাপার্টমেন্ট রয়েছে। সেটি ৫০০০ বর্গফুট জায়গার ওপর। প্রায় ছয় মাস ধরে আধুনিক এশিয়া ও ইউরোপীয় শিল্পের আদলে করা ঘরসজ্জা। তেলে আঁকা নানা ছবি আর কারুকার্য।

এক ঘরে রয়েছে আলাদা হোম থিয়েটার। সেপারের বারান্দায় দাঁড়ালে দেখা যায় সমগ্র মুম্বাই শহর। তাছাড়া উত্তর প্রদেশের একটি ছোট শহরে আমির খানের নামে রয়েছে ২২টি বাড়ি। এগুলো ছাড়া পঞ্চগনিতে রয়েছে এক প্রকাণ্ড বাংলা। যার দাম ১৫ কোটির বেশি।

আমির খান এর গাড়ির কালেকশন

কেবল ভারতে নয় আমেরিকার বিভারলি হিল’ছে একটি বাড়ি আছে অভিনেতার।। যার দাম 75 কোটি। আমিরের বাড়িতে রয়েছে এক ধরনের দামি আসবাব। সে আসবাবের দাম 2 কোটির কাছাকাছি। এছাড়া তার গাড়ির তালিকা বলতে গেলে অন্তহীন।। আমির খানের mercedes-benz এর গাড়িটির দাম ১১ কোটি ৬ লক্ষ। দ্বিতীয় গাড়িটি হচ্ছে রুলস রয়েলস কূপ । যার দাম 4 কোটি 6 লক্ষ এবং এটির বিশেষ্য হচ্ছে বুলেটপ্রুফ। এরপরে রয়েছে বেন্টলি কন্টিনেন্টাল ফ্লাইং ল কার। তার দাম ৩ কোটি ১০ লক্ষ। আমিরের পছন্দের রেঞ্জ রোভার দাম এক কোটি ৭৪ লক্ষ। তাকে প্রায় সই এই গাড়িতেই বেশি দেখা যায়।

২০২৩ সালে টাইম ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে দেখা যায় তার মুখ, বিশাল এই ম্যাগাজিনে আমির খানকে রাখা হয় বিশ্বের সেরা ১৩২ তালিকায়। প্রচার বিমুখ এই অভিনেতার ধরিতে বহু পুরস্কার থাকলেও কখনো কোনো পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যান নি তিনি। বিশ্লেষকদের মতে ভারতে চলচ্চিত্র জগতে আমির খানের মতো অভিনেতা এখন পর্যন্ত আসেনি। অভিনেতা তো কতই থাকে কিন্তু অভিনয়ের ভেতর দিয়ে কোটি কোটি মানুষের মাথার ভেতর ঢুকে সেখানে স্থায়ী আসন গড়ে তোলে যে কতজন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top